প্রথমত কোন বিভাগে পড়া উচিত তা সম্পূর্ণ নির্ভর করে একজন শিক্ষার্থীর নিজের পছন্দের উপর।আমাদের দেশে মূলত সাইন্স, কমার্স, আর্টস এই তিনটি শাখা আছে। একজন শিক্ষার্থীর তার নিজের পছন্দ অনুযায়ী বিভাগ নির্বাচন করা উচিত। 

কিন্তু সমস্যা বাধা দেয় অন্য জায়গায়। আমাদের শিক্ষাব্যবস্থার নানান সমস্যার কারণে একজন শিক্ষার্থী বুঝে উঠতে পারে না তার ঠিক কোন বিষয়ে পড়াশোনা করা উচিত। ব্যবহারিক জ্ঞান না থাকার কারণে নিজেদের পছন্দও তারা বুঝে উঠতে পারেনা। এতে করে ভুল বিভাগে গিয়ে পরবর্তীতে দেখা যায় তার ইন্টারেস্ট অন্য কোন বিষয়ে। উদাহরণ স্বরূপ আমার এক বন্ধুর কথা বলি, সে পড়াশোনায় মেধাবী ছিলো। ক্লাস ৮ পাস করার পর সে কমার্স নেয় কারণ তার ধারণা ছিলো সাইন্সে প্রচুর পড়তে হয়। তাছাড়া সে ভাবতো ইঞ্জিনিয়ার হয়ে সে কি আর করবে! কিন্তু যখন সে SSC পাস করে ইন্টার এ উঠলো ICT বইয়ের HTML এবং প্রোগ্রামিং লেঙ্গুয়েজ পড়ে তার নিজের কোডিং উপর শখ জাগে। সে বাসায় বসে প্রোগ্রামিং শিখতে থাকে। তখন সে আফসোস করে ইশ সাইন্সে পড়লে আজকে তো CSE নিয়ে পড়তে পারতা। প্রোগ্রামিং আমি তখন আরোও বিস্তৃতভাবে শিখতে পারতাম। 

এখানে মূলত সে যদি আগেই সাইন্স সম্পর্কে ব্যবহারিক জ্ঞান লাভ করতো তাহলে এই ভুল বিভাগ নির্বাচন সে কখনোই করতো না। তাই আমাদেরকে খুব ভেবে চিন্তে বিভাগ নির্বাচন করা উচিত। 

কারোও যদি ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার ইচ্ছে থাকে তাহলে অবশ্যই তাকে সাইন্সে পড়তে হবে। তাছাড়া একজন সাইন্সের শিক্ষার্থী ইন্টার শেষে যেকোন বিষয় নিয়ে চাইলে পড়ালেখা করতে পারে। কিন্তু একজন কমার্স আর্টস এর শিক্ষার্থী তা পারে না। 

যদি ব্যাংকিং, মার্কেটিং সংক্রান্ত বিষয়ে আপনার ইন্টারেস্ট থাকে নির্দিধায় আপনি কমার্সে যেতে পারেন। এক্ষেত্রে আর্টস এর শিক্ষার্থীরা চাইলে মার্কেটিং, ব্যাংকিং এইসব নিয়ে বিবিএ করতে পারবে। 

তাছাড়া কারোও যদি ইংরেজী, বাংলা, ইকোনোমিকস,  লো তে ইন্টারেস্ট থাকে সেক্ষেটে আর্টস হতে পারে তার জন্য সেরা নির্বাচন। তবে যেকোন সাইন্স, কমার্স এর শিক্ষার্থী চাইলেই এইসব বিষয় নিয়েও পড়াশোনা করতে পারবেন। আশা করি আপনাদের এই আর্টীকেলটি অনেক উপকারে আসবে।
Previous Post Next Post